নিজস্ব প্রতিনিধি- ১৪২৭ বাংলা বর্ষকে বিদায় জানিয়ে ১৪২৮ বঙ্গাব্দকে বরণ করে নিয়েছে কলকাতা। পশ্চিমবাংলার দিনপঞ্জি অনুযায়ী বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) উদযাপন হচ্ছে পহেলা বৈশাখ। নতুন বছরকে বরণ করে নিতে কলকাতার পরিবেশ ছিলো আনন্দমুখর। বর্ণ-ধর্ম নির্বিশেষে সব ভাষাভাষীর মানুষ সম্প্রীতি বজায় রেখে রাজপথে বের করেছিল মঙ্গল শোভাযাত্রা। তবে, অন্যান্য বছরের মতো এবারের শোভাযাত্রায় সেই ধরনের আড়ম্বর ছিলো না। সীমিত আকারেই দিনটি উদযাপন করা হয়েছে। দক্ষিণ কলকাতার বাঘাযতীনের মঙ্গল শোভাযাত্রায় ছিলো রংবেরঙের মুখোশ, ফুল, পেঁচা ইত্যাদি। শোভাযাত্রা উপলক্ষে রাজপথে দেওয়া হয়েছিলো আলপনা।

মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণের মধ্যে আনন্দ থাকলেও সেরকম একটা খুশির ছোঁয়া ছিল না সবার চোখেমুখে। নতুন পোশাকের সঙ্গে মুখে ছিলো মাস্ক। শোভাযাত্রায় সঙ্গীত ও নৃত্যর মধ্য দিয়ে পা মেলায় কলকাতায় কলাবিভাগে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা। বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থী ছাড়া পা মেলান বিভিন্ন পেশার সব বয়সী মানুষরা। ভোটের বাংলায় বাড়ছে করোনা। আর তাই এবছরও পহেলা বৈশাখ উদযাপনে বাঙালির তেমন মন নেই। ফলে দুই-একটি সংগঠন ছাড়া দিনটি উপলক্ষে বাঙালির তেমন কোনো মাতামাতি নেই রাজপথে। এবছরটাও বঙ্গবাসীরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেই সেরে ফেলছে শুভ নববর্ষ…।

 180 total views,  2 views today