ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার নিন্দা করে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে আনা প্রস্তাব সমর্থন করল ভারত।

বিশ্বসংস্থাটিতে সাম্প্রতিককালে এই প্রথমবার পুরনো মিত্র মস্কোর বিরুদ্ধে ভোট দিল নয়াদিল্লি।

এর আগে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ, সাধারণ পরিষদ ও মানবাধিকার পরিষদে মস্কোর বিরুদ্ধে তোলা একাধিক প্রস্তাবে সমর্থন বা বিরোধিতা কোনোটাই না করে ভোটদানে বিরত থেকেছে ভারত।

ইউক্রেনের ওপর রাশিয়ার আক্রমণ বন্ধ এবং সেনা প্রত্যাহারের প্রস্তাব এনে জাতিসংঘের ১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদে স্থানীয় সময় বুধবার রাতে আলোচনা হয়।

পরিষদে ভিডিও লিংকের মাধ্যমে বক্তব্য দেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কি। বৈঠকে ভারতের পক্ষ থেকে সহিংসতা এড়িয়ে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের আবেদন করা হয় লড়াইরত দুই দেশের প্রতিনিধির কাছে।

ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর থেকে গত ছয় মাসে নিরাপত্তা পরিষদ, সাধারণ পরিষদ ও মানবাধিকার পরিষদে রুশ হামলার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা মহলের তোলা একাধিক প্রস্তাবে ভোট দেওয়া থেকে বিরত থেকেছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। তবে কয়েক মাস আগে আন্তর্জাতিক আদালতে ইউক্রেনে রুশ সামরিক অভিযান নিয়ে উদ্বেগ এবং আশঙ্কা প্রকাশ করে গৃহীত প্রস্তাবে সমর্থন দিয়েছিল ভারত।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রুশ হামলা শুরুর পর অনুষ্ঠিত নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে প্রথম যুক্তরাষ্ট্র ও তার সহযোগী রাষ্ট্রগুলো রাশিয়ার বিরুদ্ধে প্রস্তাব তুলেছিল।

সে সময় ভোটাভুটিতে অংশ না নেওয়ার কথা জানিয়ে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টি এস তিরুমূর্তি বলেছিলেন, ‘ইউক্রেনের সাম্প্রতিক ঘটনাপ্রবাহে ভারত গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। আমরা অবিলম্বে বৈরিতা ও সহিংসতা বন্ধের আবেদন জানাই। কিন্তু অন্য দেশের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক সংহতিকে সম্মান করাই ভারতের নীতি। ’

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা